এক্সট্রা ভার্জিন গ্রেড নারিকেল তেল প্রতি লিটার ৳৬০০/-

৳ 600.00

ন্যাচারাল নারিকেল তেলঃ ( আমাদের নারিকেল তেলের বৈশিষ্ট্য )–
 
১। শুষ্কপ্রক্রিয়ায় তেরী ২। ভার্জিন গ্রেড নারিকেল তেল ৩। কোন প্রকার কৃত্রিম রং, সুগন্ধ ও ক্যামিকেল মুক্ত ৪। নিজস্ব তেতুল কাঠের ঘানিতে তৈরি করি ৫। ফলে খাওয়া, গায়ে মাখা ও রান্নাতেও চমৎকার স্বাদ পাওয়া যায়।
 
আসুন আমরা জেনে নিই যে পিওর অর্গানিক নারিকেল তেল এবং ভার্জিন/ এক্সট্রা ভার্জিন তেল বলতে আমরা আসলে কী বুঝি?
 
আমরা স্কিন ও হেয়ার কেয়ারে তেলের ব্যবহার করি, তখন আমাদের সব সময় মাথায় রাখতে হবে একদম ১০০% পিওর অর্গানিক এবং যতটুকু সম্ভব ভার্জিন তেল যেন ব্যবহার করা হয়।
 
বাজারে ব্র্যান্ডগুলো যে নারকেল তেল অথবা আমনড অয়েলের নামে যা বিক্রি করে তা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই হয় প্রায় ৪০%-৫০% মিনারেল অয়েল মেশানো।
 
আজকাল দিন কাল এমন, কেউ আসল তেল চেনেনই না অথবা কী কী গুনাগুন থাকলে সেটা আসলেই আপনার স্বাস্থ্য, স্কিন ও হেয়ারের আসলেই কিছু উপকার করতে পারবে তাও বুঝতে পারেন না। অযথাই অনেকগুলো টাকা দিয়ে মার্কেট থেকে প্রসেস করা মিনারেল অয়েল মেশানো রিফাইন্ড তেল কিনে এনে সেটা দিয়ে কিছু রূপচর্চা করে কোন রেজাল্ট না পেয়ে হতাশ হয়ে যান।
 
অর্গানিক নারিকেল তেলের ঘ্রান: বাজারের কোন দোকান থেকে কেনা নারিকেল তেল থেকে আসল ঘানি ভাঙ্গা তেলের মত কড়া নারিকেলের ঘ্রান পাওয়া যায়না। বাজারের সব তেল থেকেই কেমন যেন পেট্রোলিয়াম জেলির মত ঘ্রান আসে। আসল তেল যখন প্রথম ঘানি থেকে নামান হয়, এটা থেকে একদম নারিকেলের বরফির মত একটা ঘ্রান বের হয়। অনেক দিন ধরে বোতলে ভরে রাখতে রাখতে এই ঘ্রান তা একটু মিইয়ে যায়।
 
অর্গানিক নারিকেল তেলের রং: রঙের কথা বলতে গেলে বলতে হয়, বোতলে রাখা অবস্থায় নারিকেলের রঙ হয় একদম সোনালি। আর বড় ঘানিতে নারিকেলের খলাসহ পিষে ফেলে তেল বের করা হয়। যেকোন রাসায়নিক পদ্ধতিতে ফিল্টার না করে একদম ন্যাচারালভাবে ছেকে তেল তৈরি করা হয় তাই তেলের ভিতরে নারিকেলের খোলার হালকা কিছু গুড়ো থাকে।
 
অর্গানিক তাজা নারিকেল থেকে তৈরি ঘানি ভাঙ্গা তেল কৃত্রিম উপায়ে পরিশোধন করা হয় না বলে এতে হালকা পরিমান পানি রয়ে যায়। সম্পূর্ণ তাপবিহীনভাবে এই তেল তৈরি হয় বলে তেল ফুটিয়ে পানি দূর করার প্রশ্নই ওঠে না। এতে তেলের গুনাগুন একেবারেই নষ্ট হয়ে যেতে পারে।
 
একটু পানি থাকার কারণে এই তেল ব্যবহার শুরু করার এক বছরের মধ্যেই শেষ করে ফেলাটা ভালো। কারণ তাজা তেলের গুনাগুন এর মধ্যেই অনেকটা শেষ হয়ে যায়। মাঝে মাঝেই ঘানি ভাঙ্গা তেলের বোতলগুলো একটু রোদে দিতে হয়। ঘরে বানান আচার যেমন রোদে দিলে তাজা থাকে, গন্ধ হয় না। ঠিক তেমন।
 
কোথা থেকে ভার্জিন অর্গানিক তেল যোগার করতে পারবেন খাঁটি তেল যারা চেনেন না তাদের জন্য অর্গানিক ব্র্যান্ডের খাঁটি তেল কৃষকডটকম; ভেজালমুক্ত দুনিয়া; www.krishokdotcom.net
মোবাইল: ০১৯১৬-৭০৬৭৬৭, 01811184999,
বহদ্দারহাট জামে মসজিদ সংলগ্ন বনফুল মিষ্টি দোকানের উপরের (floor) গেলেই আপনি সংগ্রহ করতে পারবেন।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “এক্সট্রা ভার্জিন গ্রেড নারিকেল তেল প্রতি লিটার ৳৬০০/-”

Your email address will not be published. Required fields are marked *