fbpx

তিলের চাল প্রতি কেজি ৳৩০০/-

অতি প্রচীনকাল থেকে মানুষ তিলের চাষ ও তিল দ্বারা তৈরি খাবার খেয়ে আসচ্ছে। তিলে রয়েছে অনেক অজানা পুষ্টি ও ওষুধি গুণাগুণে ভরপুর।
নিয়মিত তিল ও তিলের তৈরি খাবার খেতে পারেন।
#তিল ভেজে ভর্তা #তিলের নাড়ু # তিলের তৈল #বিভিন্ন মিস্টি খাবারের উপর ছিঠিয়ে পরিবেশন #পাউরুটির উপর ছিঠিয়ে পরিবেশন এছাড়াও বিভিন্ন ভাবে খাওয়া যায়।
সারা পৃথিবীর স্বাস্থ্য ও পুষ্টি বিশেষজ্ঞরা সাদা তিলকে সেরা পুষ্টিসমৃদ্ধ খাদ্য হিসেবে বিবেচনা করেন। এই সাদা তিলের রয়েছে অনেক গুণ ও মানব দেরহরে উপকারিতা । আসুন জেনে নেয়া যাক সাদা তিলের উপকারিতাগুলো :
১. উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে প্রভূত কার্যকরী সাদা তিল কারণ এই তিলে রয়েছে ম্যাগনেসিয়াম যা উচ্চ রক্তচাপ হ্রাস করে।
২. সাদা তিলে একাধিক প্রয়োজনীয় ভিটামিন এবং মিনারেলস রয়েছে। তাই প্রতিদিনের খাবারে এই উপকরণটি ব্যবহার করলে শরীরের ক্যানসার প্রতিরোধ ক্ষমতা বেড়ে যায়।
৩. ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণেও অত্যন্ত কার্যকরী এই তিল।
৪. সাদা তিলে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে জিঙ্ক, ক্যালসিয়াম ও ফসফরাস যা হাড় মজবুত করে এবং অস্টিওপোরোসিসের সম্ভাবনা কমায়।
৫. ফাইবার-যুক্ত হওয়ার ফলে হজম ও কোষ্ঠকাঠিন্য-সংক্রান্ত সমস্যাও দূর করে।
৬. তেজস্ক্রিয়তার হাত থেকে ডিএনএ-কে রক্ষা করার অসাধারণ ক্ষমতা রয়েছে সাদা তিলের। তাই যাদের কেমোথেরাপি নিতে হয় তাদের খাদ্যতালিকায় এই উপাদান রাখা খুব প্রয়োজনীয়।
৭. সাদা তিল মুখের স্বাস্থ্যের জন্যও গুরুত্বপূর্ণ উপকরণ। মুখের ভিতরের ব্যাকটেরিয়া নিধনের জন্য মুখের ভিতর স্প্রে করা হয় সাদা তিলের তেল। এই পদ্ধতিকে বলা হয় অয়েল পুলিং।
৮.অল্প তিল আর চিনি একসঙ্গে পিষে বা কুটে নিয়ে মধু মিশিয়ে চাটালে বাচ্চাদের মল থেকে রক্ত পড়া বন্ধ হয়।
৯.সকালবেলা এক মুঠো তিল চিবিয়ে খেলে বল ও পুষ্টি পাওয়া যায় সেইসঙ্গে দাঁত এতো মজবুত হয়ে যায় যে বৃদ্ধ বয়স পর্যন্ত নড়ে যায় না, ব্যথা করে না, পড়েও যায় না।
১০.যদি মেয়েদের ঋতুস্রাব ঠিক মতো না হয় এবং খুব ব্যথা-বেদনা হয় তাহলে তিলের তেল খাওয়া উচিত। দু চা চামচ তিল পিষে নিয়ে এক গ্লাস জলে ফুটিয়ে নিন। এক চতুর্থাংশ জল থেকে গেলে সেই জলটুকু পান করলে মাসিক ঠিক মতো হবে।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “তিলের চাল প্রতি কেজি ৳৩০০/-”

Your email address will not be published. Required fields are marked *